Jump to content
News Ticker
  • News ticker sample
  • News ticker sample

Search the Community

Showing results for tags 'ডিজাইন'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


Forums

  • ফোরাম সাপোর্ট
    • ফোরাম নিউজ
    • পরিচয় / পরামর্শ/
    • ব্যাবহার বিধি
  • ফ্রিল্যান্স গাইড
    • ফ্রিল্যান্স গাইড
    • মার্কেটপ্লেস
    • প্রশ্ন-উত্তর/ সমস্যা ও সমাধান
    • পেমেন্ট প্রসেসর
    • আমার ফ্রিল্যান্সিং জীবন
    • Other Ways To Earn Online
  • ফ্রিল্যান্স জব পোস্ট
    • ডিজাইন ও ক্রিয়েটিভ জব পোস্ট
    • সফটওয়্যার ডেভেলপমেনট জব পোস্ট
    • ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট জব পোস্ট
    • সেলস ও মার্কেটিং জব পোস্ট
    • এডমিনিস্ট্রেশন জব পোস্ট
    • ইঞ্জিনিয়ারিং/IT জব পোস্ট
  • ডিজাইন ও ক্রিয়েটিভ
    • লোগো ডিজাইন ও ব্র্যান্ডিং
    • ইলাস্ট্রেশন
    • গ্রাফিক ডিজাইন
    • ফটোগ্রাফি
  • ওয়েব, মোবাইল ও সফটওয়্যার
    • ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
    • কিউ অ্যান্ড টেস্টিং
    • এ্যানড্রইয়েড
    • আই ও এস
  • সেলস ও মার্কেটিং
    • এস ই এম/ এস ই ও
    • লিড জেনারেশন
    • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং
    • টেলিমার্কেটিং ও টেলিসেলস
  • একাউন্টিং এন্ড কনসাল্টিং
  • প্রকৌশল ও স্থাপত্য
  • তথ্যপ্রযুক্তি
    • কম্পিউটার
    • কম্পিউটার গেমিং
    • মুঠোফোন রিভিউ

Blogs

There are no results to display.

There are no results to display.

Calendars

  • Community Calendar

Categories

  • Articles

Found 3 results

  1. বিস্তারিত গাইডলাইন: ধাপঃ ১ অনলাইনে বিভিন্ন টিউটোরিয়ালগুলো খুজে বের করুন, সেগুলো পড়ুন কিংবা ভিডিও হলে দেখুন। ইউটিউবে সার্চ করে ভাল ভিডিও সোর্স খুজে বের করতে পারবেন। দেখে দেখে ৫টি প্রজেক্ট করুন এবং আপনার দক্ষতাকে আরও বৃদ্ধি করতে পারেন। গ্রাফিক ডিজাইন শিখার জন্য ইংরেজিতে সবচাইতে বিখ্যাত ওয়েবসাইট: ১) http://www.lynda.com/ ২) http://tutsplus.com/ এছাড়া বাংলার জন্য দেখতে পারেন ...........www.projuktiteam.com/ ♦ ধাপঃ ২ অনেক কিছু শিখতে হবে। যদি আপনার কম্পিউটার সম্পর্কে প্রাথমিক কিছু জ্ঞান থেকে থাকে, তাহলে ইতিমধ্যে হয়ত অনেক কিছুই আপনার জানা আছে। কি কি শিখতে হবে, তার কিছু এখানে উল্লেখ করছি। – স্ক্যালিং: আপনার ইচ্ছেমত ছবিকে বড় এবং ছোট করা জানতে হবে। – নির্দিষ্ট এলাকাকে কালার, টেক্সচার দিয়ে ফিল আপ করা শিখতে হবে। – ছবির কালার এবং অন্য ধরনের কিছু পরিবর্তন করা শিখুন। – বিভিন্ন কাজের জন্য ভিন্ন ভিন্ন ফরম্যাটে ছবিকে সংরক্ষণ করুন। – ছবির একটি নির্দিষ্ট অংশকে ডিলিট করা কিংবা ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা শিখুন। – ছবিকে ক্রপ (crop) করা, আউটলাইন, এডজ ডিটেকশন করুন। – কপি ও পেস্ট, ড্র্যাগ ও ড্রপ, ডুপলিকেট করা শিখুন। – ছবিকে ফ্লিপ (Flip) করা, বিভিন্ন অ্যাংগেলে রোটেট করা (rotate) করা – মুভ (move), নাডজ (Nudge) এর বিষয় জানতে হবে। – নতুন লেয়ার তৈরি এবং লেয়ারের বিভিন্ন ইফেক্ট জানা থাকতে হবে। – প্রয়োজন অনুযায়ি কালার ব্যবহার করা জানা জরুরী – গ্রে স্ক্যাল (gray scale) কিংবা ছবিকে সাদাকালো কিংবা ছবিকে নেগেটিভ করা জানতে হবে। – টেক্সচার, শ্যাডো এবং অন্যান্য স্পেশাল ইফেক্ট (পোস্টারাইজ (Posterize), পিক্সেলাইজ (Pixelize), অ্যামবুস( Emboss), ব্লার (Blur), শার্পেন ৯ Sharpen) ইত্যাদি ব্যাপারে জানা থাকতে হবে। – বর্ডার (Borders) তৈরি, স্ক্যাল ব্যবহার। – ব্যাকগ্রাউন্ড (Background), ফরগ্রাউন্ড (foreground) সম্পর্কে ধারণা – আইকন এবং লোগো তৈরি – পেজ লেআউট তৈরি, কলাম তৈরি করা শিখতে হবে। – লেখার সাইজ পরিবর্তন, বোল্ড, ইটালিক ইত্যাদি করা জানতে হবে। ♦ ধাপঃ৩ নিজের ব্যক্তিগত কিংবা আশেপাশের অন্যদের প্রফেশনাল কাজগুলো ফ্রি করে দিন। অনেকগুলো রিয়েল প্রজেক্ট করলে মোটামুটি কনফিডেন্ট তৈরি হবে। ♦ ধাপঃ৪ ধাপঃ২ এবং ধাপঃ ৩ এর পর আপনি মোটমুটি কাজ শিখে গেছেন। এবার আপনাকে কনটেস্টে অংশগ্রহন করতে হবে। যদিও কনটেস্টে জয় লাভ করা কষ্টকর। কিন্তু আপনি শুধু জেতার জন্য কনটেস্টে অংশগ্রহণ করবেননা। প্রতিযোগিতার বাজার দেখে নিজেকে আরও দক্ষ করা এবং নিজের দক্ষতাকে সবার সামনে প্রকাশ করার জন্য অনলাইনে বিভিন্ন কনটেস্টে অংশগ্রহণ করুন। ♦ ধাপঃ৫ আপনার করা ডিজাইনকে অনলাইনে বিভিন্ন সাইটে (behance.net, dribble.com) কিংবা নিজের তৈরি করা ব্লগের মাধ্যমে মানুষের কাছে প্রকাশ করুন।
  2. গ্রাফিক ডিজাইনারদের জন্য অনলাইনে আয়ের সেক্টরগুলো নিচে উল্লেখ করা হলো: ♦ ডিজাইন প্রতিযোগিতা: শুধুমাত্র বিভিন্ন ডিজাইন প্রতিযোগীতাতে অংশগ্রহণ করে আয় করা যায় এরকম অনেক মার্কেটপ্লেস রয়েছে। এসব মার্কেটপ্লেসে কোন বায়ার তাদের প্রয়োজনীয় ডিজাইন যোগাড় করার জন্য প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। প্রতিযোগীতাতে অংশগ্রহনকারী যে ডিজাইনারের ডিজাইন পছন্দ হবে, নির্দিষ্ট সময় শেষে তাকে পুরস্কৃত করা হয়। সাধারণত ৩০০ডলার থেকে ১২০০ডলার পযন্ত পুরস্কার দেওয়া হয়। এরকম বিখ্যাত সাইটের নাম: 99designs.com ♦ ডিজাইন বিক্রি: কিছু মার্কেটপ্লেস আছে, যেখানে নিজের করা ডিজাইন জমা রাখা যায়। সেখানে বিভিন্ন বায়ার এসে তাদের পছন্দ অনুযায়ি ডিজাইনটি কিনে থাকে। একটা ডিজাই্ন একের অধিক যতবার ইচ্ছে বিক্রি হতে পারে। অর্থাৎ আপনার একটা ডিজাইন অনেকবার বিক্রি হয়ে আপনাকে এনে দিচ্ছে বসে বসে ইনকাম। এরকম বিখ্যাত সাইটের নাম: graphicriver.net ♦ বিড করে কাজ যোগাড়: অনেক মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে বায়ার তার কাজে বর্ণনা করে পোস্ট করে। ফ্রিল্যান্সাররা সেখানে কাজটি করতে চেয়ে আবেদন করে, যাকে বিড করা বুঝায়। এখানে পোর্টফলিও শক্তিশালী না থাকার কারনে নতুনদের জন্য কাজ পাওয়াটা কষ্টদায়ক হয়ে থাকে। এরকম বিখ্যাত সাইটের নাম: upwork.com ♦ গিগ বিক্রির মাধ্যমে আয়: ফ্রিল্যান্সাররা তাদের সার্ভিসের কথা উল্লেখ করে রাখে যাকে গিগ বলে। এসব গিগ পড়ে বিভিন্ন বায়ার তাদের পছন্দ অনুযায়ি অর্ডার দিয়ে থাকে। একটা গিগেই হাজার হাজার বার অর্ডার আসতে পারে। বিড করার জন্য টেনশন করতে হয়না। এরকম বিখ্যাত সাইটের নাম: fiverr.com এছাড়াও আরো অনেক রকম ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো থেকেও অনলাইনে আয় করা সম্ভব হয়। যেমন: গেঞ্জি কিংবা অন্যান্য গিফট আইটেম ডিজাইন করে সেগুলোর বিক্রি থেকেও ভাল আয় করার মত অনলাইনে সাইট রয়েছে।
  3. এখন আপনি ইচ্ছা করেলেই ঘরে বসে লোগো ডিজাইন করে ডলার উপাজন করতে পারবেন। এ জন্য আপনাকে ফটোশপ শিখতে হবে।
×